সবার সব চেষ্টা ব্যর্থ, সবাইকে কাঁদিয়ে মৃত্যুর দেশে চলে গেল মধুমিতা

বাঁকুড়া:- সম্পূর্ণ অর্থেই আজ নিঃস্ব সমীর মাঝি ও তার স্ত্রী। নিজস্ব সামান্য সম্পত্তি এবং অন্যান্য জিনিস বিক্রি করেও এতটা নিঃস্ব মনে হয়নি সমীর মাঝি ও তার স্ত্রীকে, কারণ আশা ছিল একদিন না একদিন আদরের মেয়ে মধুমিতাকে সুস্থ করে বাড়িতে ফিরিয়ে আনবেন এবং তাদের দুঃস্থ সংসারে উঠবে আবার নতুন ভোরের আলো।

গত বুধবার মধুমিতা হঠাৎ করে আবারো অসুস্থ হয়ে পড়ায় তড়িঘড়ি করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। মধুমিতাকে সুস্থ জীবন দিতে এগিয়ে আসেন সমাজ সমাজসেবী থেকে সমাজসেবী সংস্থা প্রচুর মানুষ। যারা আশ্বাস দিয়েছিলেন সবরকমের সহযোগিতা করার । কিন্তু ব্যর্থ চেষ্টা, মৃত্যু যে তিল তিল করে মধুমিতাকে নিয়ে গিয়েছিল মৃত্যুর আরো কাছাকাছি। অবশেষে শুক্রবার সম্পূর্ণ নিভে গেল মধুমিতার জীবন প্রদীপ।
বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছোট্ট মেয়ে মধুমিতা বাবা মায়ের কোল খালি করে মৃত্যুর দেশে পাড়ি দিলো।

আজ সম্পূর্ণ অর্থেই নিঃস্ব সমীর মাঝি ও তার স্ত্রী। সামনে-পিছনে, ডাইনে বামে, যেদিকেই তাকাই সমীর ও তার স্ত্রী, সে দিকেই তাদের নজরে আসে জমাট অন্ধকার আর বুক ভরা হাহাকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *